“যার জন্য পেয়েছি স্বাধীনতা”

কুষ্টিয়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে বিভিন্ন অঙ্গ-সংগঠন বিক্ষোভ করেছিলো।

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুর করে আমাদের বাঙালী জাতির মনে আঘাত করেছে। এই স্বাধীন দেশে এখনো লুকিয়ে আছে রাজাকাররা। মুক্তিযুদ্ধের সময় কিছু রাজাকার ধর্মের নাম করে দেশ ও দেশের মানুষের সর্বনাশ করেছিল। কিন্তু তাদের উদ্দেশ্য সফল হয়নি।

অনেক রক্তের বিনিময় যেমন বিজয় লাভ করেছি আমরা। তেমনি যতই দুর্বৃত্তরা শেখ মুজিবুর রহমান এর ভাস্কর্য ভেঙে ফেলতে চাইনা কেন, তাদের উদ্দেশ্য কখনো সফল হবেনা।

যার জন্ম না হলে বাংলাদেশ নামক ভূখণ্ডের সৃষ্টি হতো না। আজ তার ভাস্কর্য নিয়ে কত মানুষের অ্যাল্যার্জি। বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ শেখ মুজিবুর রহমান এর ভাস্কর্য রক্ষা করতে জানে।

আবার নতুন করে গড়া হয়েছে শেখ মুজিবুর রহমান এর ভাস্কর্য। দুর্বৃত্তরা জানেনা বাঙালী জাতির পিতা প্রতিটি বাঙালীর অন্তরে ছবি হয়ে বেঁচে আছে এবং সারাজীবন বেঁচে থাকবে।

কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার ও জাতীয় স্মৃতিসৌধ, যেমন আমাদের ইতিহাসকে ধরে রেখেছে। তেমনি শেখ মুজিবুর রহমান এর ভাস্কর্য ইতিহাসকে ধরে রাখবে।

আগামী দিনের ছেলে-মেয়েরা বাবা-মার হাত ধরে প্রশ্ন করবে এই ভাস্কর্যটি কার। কেন তিনি আমাদের সবার মাঝে দাঁড়িয়ে আছে। বাবা-মা তাদের উত্তরে বলবে ১৯৭১ সালে তিনি স্বাধীনতার ঘোষণা করেছিলেন। সাধারণ মানুষকে বলেছিলেন, লড়াই করো দেশটাকে স্বাধীন করো।

তাইতো আজ আমরা স্বাধীন ভাবে কাজ করতে পারি। আমাদের দেশের ছেলে-মেয়েরা ভাস্কর্য দেখে ছোট থেকেই সাহসী হয়ে বেড়ে উঠবে। আর শেখ মুজিবুর রহমান এর মত দেশ টাকে ভালোবাসবে এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা বজায় রাখবে।

সাংবাদিক
সামরুজ্জামান (সামুন)
কুষ্টিয়া

আলোচিত খবর

error: কপি করা যাবে না -ধন্যবাদ